ব্যবসায় লস হওয়ায় স্ত্রী পূত্রসহ আত্মহত্যা

ব্যবসায় লস হওয়ায় স্ত্রী পূত্রসহ আত্মহত্যা

গার্মেন্টসে লস, পুঁজি হারিয়ে মানষিক হতাশা থেকে স্ত্রী-সন্তানকে বিষ খাইয়ে হত্যার পর নিজেও আত্মহত্যা করেছেন এই ব্যবসায়ী। এমন ধারণা করছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার ১০ অক্টোবর দুপুরে রাজধানীর মিরপুর ১৩ নম্বর সেকশনের ৫ নম্বর সড়কের ১০/১ নম্বর বাড়ির তিন তলা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। তারা হলেন- বায়েজিদ, তার স্ত্রী অঞ্জনা ও এইচএসসি পড়ুয়া ছেলে।

পুলিশ জানায়, ঘরের ফ্যানের হুক থেকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় বায়েজিদকে পাওয়া যায়। অন্যদের লাশ বিছানায় পড়ে ছিল।

বুধবার রাতের কোনো এক সময় এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে জানিয়ে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান, স্বজনরা ফোন দিয়ে তাদের না পেয়ে বাসায় গিয়ে ভেতর থেকে দরজা বন্ধ পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়।

ওই বাসায় পাওয়া একাধিক চিরকুট পাওয়া গেছে জানিয়ে পুলিশ জানায়, বায়েজিদ ব্যবসা করতেন। কিন্তু নানা কারণে ব্যবসায় লস হচ্ছিল। এ অবস্থায় তার মধ্যে হতাশা দেখা দেয়। বুধবার রাতের কোনো একসময় স্ত্রী ও সন্তানকে খাবারের সাথে বিশ মিশিয়ে হত্যা করে বায়েজিদ নিজে আত্মহত্যা করেন।

বায়েজিদের এক আত্মীয় জানান,  বায়েজিদ বেশকিছু দিন ধরেই ঋণগ্রস্ত ছিলেন। ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন তিনি। এ কারণে তিনি স্ত্রী ও সন্তানকে বিষ খাইয়ে হত্যা করে নিজেও আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

নিহত বায়েজিদ আহমেদ অনেক দিন থেকেই মিরপুর ১৩ নম্বর এলাকায় বসবাস করে আসছিলেন। ব্যবসা করার জন্য ব্যাংকসহ বিভিন্ন জায়গা থেকে ঋণ নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ব্যবসায় লোকসান হওয়ায় সেই টাকা পরিশোধ করতে পারছিলেন না। হয়তো এজন্য আত্মহত্যার পথে বেছে নিয়েছেন তিনি এমনটাই ধারণা ওই এলাকাবাসীদের।

কেএন/ফাস্টরিপোর্ট

Facebook Comments