ক্যাসিনোর টাকা উদ্ধার করে সেগুলো গ্রামগঞ্জের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান

ক্যাসিনো উদ্ধার করে সেগুলো গ্রামগঞ্জের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান

ক্যাসিনো বা অবৈধভাবে উপার্জিত টাকা উদ্ধার করে সেগুলো গ্রামগঞ্জের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছেন ফেসবুক লাইভে বিভিন্ন সমসাময়িক ইস্যু তুলে ধরে আলোচনায় আসা সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

২২ সেপ্টেম্বর তার নিজের এলাকা হবিগঞ্জের ৫ নম্বর শানখোলা ইউনিয়েনের বাজেশতং গ্রামে একটি কাঠের ব্রিজ উদ্বোধনকালে ফেসবুক লাইভে এসে তিনি এ আহ্বান জানান।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘আমার নিজের এলাকা হবিগঞ্জের ৫ নম্বর শানখোলা ইউনিয়নের বাজেশতং গ্রাম। গ্রামের মানুষের আবেদন অনুযায়ী এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণ করেছি। এ ব্রিজটি উদ্বোধন করতে এসেছি। আজকে আমার ক্ষুদ্র জীবনের ২৬তম কাঠের ব্রিজের উদ্বোধন করতি যাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন যে একটা ক্যাসিনোর জুয়ার ঘরে ১২ কোটি টাকা পাওয়া গেছে। আরও কত কোটি টাকা যে পাওয়া গেছে? কেউ বলে দেড়শ কোটি? কেউ বলে ২০০ কোটি টাকার এফডিআর পাওয়া গেছে। জুয়ার ঘরে এত টাকা পাওয়া যায়! কিন্তু যে জায়গাগুলোতে মানুষ কষ্ট পাচ্ছে সে জায়গাগুলোর কেউ খবর রাখে না। এটা ভিতরের একটা গ্রাম। এমন জায়গা সাধারণত নেতাদের চোখ পড়ে না। নেতারা এসব জায়গায় আসেন না।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ ব্রিজটা বানানোর মধ্য দিয়ে একটি কথা বলতে চাই যে, ক্যাসিনোর টাকা, যেগুলো অবৈধভাবে উপার্জনের টাকা, এ টাকাগুলো কী সরকারের মাধ্যমে গ্রামে-গঞ্জে নিয়ে আসা যায় কি-না। প্রধানমন্ত্রীর নিকট আমার আবেদন থাকবে যে, যারাই অবৈধভাবে টাকা আয় করে সেগুলো ধরে গ্রামে নিয়ে আসা যায় কিনা। আর একটা হচ্ছে যারা অনেক সফল, আমি আমার ব্যক্তিগত জীবনে যদি ২৬টি কাঠের ব্রিজ করতে পারি, আমি চাই যে এভাবে যারা সফল আছেন, তারা নিজেদের জন্মস্থানে গিয়ে খোঁজার চেষ্টা করেন। এ রকম বহু মানুষের কষ্ট হয়তো ১ লাখ টাকা দিয়ে একটা ব্রিজ বানিয়ে দিয়ে কমানো যাবে।

তিনি বলেন, আজকে ২৬তম ব্রিজ উদ্বোধন করে ২৭তম ব্রিজের জন্য এগিয়ে যাবো। যতদিন কাজ করার সক্ষমতা আছে ততদিন মানুষের কাষ্টে পাশে দাঁড়াতে চেষ্টা করবো। অন্তত নিজের জন্মস্থানটাকে আমি সুরক্ষা দিতে চাই।

 

কেএন/ফাস্টরিপোর্ট

Facebook Comments